মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
ঘূর্ণিঝড় প্রস্ত্ততি অফিস

উপজেলা অফিসে স্থাপিত এইচএফ ওয়ারল্যাস সেট এর মাধ্যমে প্রতিদিন ২ বেলা ঢাকা প্রধান কার্যালয় ও নোয়াখালী আঞ্চলিক কার্যালয়ের সাথে যোগাযোগ করা হয়। তাছাড়া অত্র উপজেলায় ৪টি ইউনিয়নে ৪টি ভিএইচ এফ ওয়ারল্যাস সেটের মাধ্যমে প্রতিদিন ২ বেলা যোগাযোগ করা হয়। উক্ত যোগাযোগের অন্যতম উদ্দেশ্য হলো যেই কোন দূর্যোগের আগাম বার্তা সংগ্রহ করা এবং স্থানীয় জনগণের মাঝে তা দ্রম্নত গতিতে প্রচারের ব্যবস্থা করা।

  • কী সেবা কীভাবে পাবেন
  • প্রদেয় সেবাসমুহের তালিকা
  • সিটিজেন চার্টার
  • সাধারণ তথ্য
  • সাংগঠনিক কাঠামো
  • কর্মকর্তাবৃন্দ
  • তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • বিজ্ঞপ্তি
  • ডাউনলোড
  • আইন ও সার্কুলার
  • ফটোগ্যালারি
  • প্রকল্পসমূহ
  • যোগাযোগ

ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি

বাংলাদেশ বিশ্বের সবচেয়ে বেশি দুর্যোগপ্রবন এলাকাগুলোর একটি। যুগে যুগে মানব ইতিহাসের দেখা সবচেয়ে ভয়ংকর কিছু ঘূর্ণিঝড় ও বন্যা বহু মানুষের জীবন কেড়ে নিয়েছে, সম্পদ ও সম্পত্তি ধ্বংস করেছে। এরকম যেকোন দুর্যোগেই বাংলাদেশের পাশে ছিলো বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি।

সিপিপি

বাংলাদেশের উপকূলীয় অ লে ঘন ঘন আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতের মোকাবেলা করার জন্য একটি পরিকল্পিত ব্যবস্থার নাম ঘূর্ণিঝড় নিরাপত্তা প্রকল্প বা সাইক্লোন প্রিপেয়ার্ডনেস প্রোগ্রাম (সিপিপি) । গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ও বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত এই উদ্যোগ ১৩টি উপকূলীয় জেলায় আগে থেকেই সতর্কতা বাণীর সুবিধা চালু করে।

আমাদের কর্মকান্ড

সিপিপির মূল কাজ ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস উপকূলীয় মানুষদের মাঝে যত দ্রুত সম্ভব পৌঁছে দেয়া। পূর্বাভাসের পর সিপিপি উপকূলীয় মানুষের আশ্রয়, উদ্ধার ও তাৎক্ষণিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। সিপিপি দুর্যোগ পরবর্তী পুনর্বাসন ও দুর্যোগ মোকাবেলায় গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে। এছাড়াও আমরা প্রতিনিয়ত বিডিআরসিএস-এর দুযোর্গ প্রস্তুতির পরিকল্পনা ও ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি।

আমাদের সুযোগ

৭টি জোনের ১৩টি জেলার ৩৭টি উপজেলার ৩২২টি ইউনিয়নের ৩২৯১টি ইউনিটে সিপিপি ২০৩ জন কর্মী এবং প্রায় ৪৯,৩৬৫ জন (৩২,৩১০ জন পুরুষ ও ১৬,৪৫৫ জন নারী) স্বেচ্ছাসেবী নিয়ে কাজ করছে।

আমাদের অর্জন

বাংলাদেশের হাজারো মানুষের জীবন বাঁচানোর স্বীকৃতি স্বরূপ এই প্রকল্প থাইল্যান্ডের “স্মিথ টামসারক ফান্ড অ্যাওয়ার্ড ১৯৯৮” অর্জন করে।

আমাদের আগামী

স্বেচ্ছাসেবার একনিষ্ঠতায় শ্রেষ্ঠত্বের লক্ষ্যে ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন “এনহান্সমেন্ট অফ সিপিপি” নামে একটি প্রকল্প শুরু করেছে। এই প্রকল্পের আওতায় দুই ধাপে আমরা আমাদের সমন্বয় ও প্রস্তুতি পরিকল্পনার উন্নয়ন এবং বাংলাদেশ সরকারের সাথে বিডিআরসিএস-এর সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করছি। আমেরিকান রেড ক্রস-ও এই প্রকল্পকে উৎসাহিত করছে।

আরো জানতে ভিজিট করুন cpp.gov.bd

সিটিজেন সার্টারঃ-স্থানীয় উপজেলা অফিস, ইউনিয়ন অফিস, ইউনিট (গ্রাম) ভিত্তিক স্বেচ্ছসেবকদের মাধ্যমে যে কোন দূর্যোগ বিশেষ করে ঘূর্ণিঝড় সম্পর্কে স্থানীয় জনগণকে সচেতন করা। আবাহাওয়া সংকেত বার্তা স্থানীয় জনগণের মাঝে প্রচার করা, দূর্যোগ কালীন সময়ে স্থানীয় জনগণকে আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়া এবং অবস্থানকালীন সময়ে সাহায্য সহযোগিতা করা। প্রয়োজনে অপসারন ও উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনা করা এবং আহত ব্যক্তিদের প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদান ও দূর্যোগ পরবর্তীতে স্থানীয় জনগণকে সর্ববিধি সাহায্য ও সহযোগিতা করা ও ত্রাণ বিতরণে সরকারি/বেসরকারি ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানকে সহায়তা প্রদান করা।

কার্যক্রম

আমরা, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, বিশ্বের বৃহত্তম মানবিক বেসরকারী প্রতিষ্ঠান আন্তর্জাতিক রেড ক্রস ও রেড ক্রিসেন্ট কার্যক্রমের অংশ।

১৯৭৩ সালে ঢাকায় প্রতিষ্ঠিত বিডিআরসিএস বাংলাদেশের বন্যা, ঘূর্ণিঝড় ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগে লাখো মানুষের উদ্ধার ও পুনর্বাসনে গুরুত্বপূর্ণ মানবিক ভূমিকা পালন করেছে।

আমাদের বিভিন্ন কর্মকান্ডে আমাদের সহায়তা, দক্ষতা এবং অংশগ্রহণ বহু মানুষের জীবন বাঁচিয়েছে এবং সমৃদ্ধ করেছে। দুর্যোগের প্রস্তুতি, প্রচারণা ও পুনর্বাসনে আমাদের বিশাল স্বেচ্ছাসেবী, কর্মী ও সহযোগীর দল কাজ করে।

বিভিন্ন প্রয়োজনে আমাদের দান ও রক্তদান কর্মসূচী বহু মানুষের জীবন রক্ষা করেছে এবং এক্ষেত্রে এটি দেশের অন্যতম বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান।

আমাদের স্বাস্থ্য বিভাগ দেশের অন্যতম নিপীড়িত ও দুঃস্থ অ লের মানুষের মাঝে বিভিন্ন সামাজিক কুসংস্কারের বিরূদ্ধে কাজ করে, সচেতনতা বৃদ্ধি করে এবং সুস্থ জীবনধারা নিশ্চিত করে। আমাদের ট্রেসিং সেবা প্রতিদিন বহু নিখোঁজ মানুষকে ফিরিয়ে দিচ্ছে তাদের আপনজনদের কাছে।

আমরা তরুণ স্বেচ্ছাসেবীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ভবিষ্যতের জন্য দায়িত্বশীল ও দক্ষ স্বেচ্ছাসেবী তৈরি করছি প্রতিনিয়ত।

আপনাদের যেকোন প্রয়োজনে, বাংলাদেশের যেকোন প্রয়োজনে, আমরা সব সময় পাশে আছি, থাকবো।

ছবি নাম মোবাইল
মোহাম্মদ ইলিয়াছ মিয়া ০১৯১৪৭৪১২৭২

ছবি নাম মোবাইল
মোহাম্মদ ইলিয়াছ মিয়া ০১৯১৪৭৪১২৭২

ছবি নাম মোবাইল

সেবা ও ধাপ সমূহঃ-বিভিন্ন দূর্যোগ বিশেষ করে ঘূর্ণিঝড় সম্পর্কে স্থানীয় জনগণকে সচেতন করা। ঘূর্ণিঝড়ের সংকেত বার্তা প্রচার করা, জনগণকে আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে ও অবস্থান কালীন সহায়তা করা। উদ্ধার করা ও প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করা। ত্রাণ বিতরণে সরকারি/বেসরকারি ব্যক্তি/প্রতিষ্টানকে সহায়তা করা।

 

দপ্তরের নামঃ-ঘূর্ণিঝড় প্রস্ত্ততি কর্মসূচী (সিপিপি)

            (গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ও বাংলাদেশ রেড়ক্রিসেন্ট সোসাইটি যৌথ কর্মসূচী)

             উপজেলা পরিষদ (পুরাতন মৎস্য ভবন)

             কোম্পানীগঞ্জ, নোয়াখালী।